রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪

| ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

আইনিজটে নাজেহাল আমিশা, অভিনেত্রীর নামে জারি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ডেস্ক অফিস

আইনিজটে নাজেহাল আমিশা, অভিনেত্রীর নামে জারি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

দীর্ঘ বিরতির পর ছন্দে ফিরছে ক্যরিয়ার। আমিশা পাটেলের সঙ্গে সানি দেওয়ল আবারও জুটি বাঁধছেন তার আগামী সিনেমাতে। গদর ২ সিনেমার কাজও শুরু হচ্ছে। তবে আমিশা এরই মাঝে আইনিজটে নাজেহাল। গত দেড় বছর ধরে চলছে আমিশাকে নিয়ে জল্পনা। জালিয়াতির কেসে নাম জড়ায় অভিনেত্রীর।

২.৫ কোটি টাকার আর্থিক তচ্ছরূপে এবার কি হাজতবাস হতে চলেছে অভিনেত্রীর? হৃত্বিক রোশনের প্রথম নায়িকা বলে কথা। একটা সময় আমিশার সঙ্গে বলিউডের সমীকরণও মন্দ ছিল না। তবে হাতে গোনা কয়েকটি সিনেমা করার পরই হারিয়ে যান তিনি। ফিরতে চেয়েছিলেন ছন্দে। স্থির করেছিলেন সিনেমা করবেন। আর সেখানেই পাকে গোল।

আমিশা এই মর্মেই ২.৫ কোটি টাকা ধার করেছিলেন। সুদ সমেত তা ফেরত দিতে পারেননি অভিনেত্রী। যার জেরে হয় মামলা। রাঁচি কোর্টে মামলার শুনানির দিন অভিনেত্রী বা তার পক্ষের উকিল আদালতে হাজিরা দিলেন না। এরপরই জারি হয়ে যায় নয়া সমন। আগামী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে ১৫ এপ্রিল।

কয়েক বছর ধরেই দু’জনের মধ্যে চাপানউতোর চলছিল। ছোট কোর্টে কেস ফাইলও করেছিলেন ওই ভদ্রলোক। কিন্তু কাজের কাজ কিছু হয়নি। শেষমেশ তিনি ঝাড়খন্ড হাইকোর্টে নায়িকার নামে মামলা করেন। অজয় সিং জানিয়েছিলেন যখনই উনি খবর পান সিনেমাটা হচ্ছে না, আমিশাকে উনি টাকা ফেরৎ দিতে বলেন। আমিশা কিছুদিন পর ওকে একটা চেক দেন বটে, কিন্তু সেই চেক বাউন্স করে।

ঋণদাতা অজয় কুমার আমিশা প্যাটেলের নামে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। তার বয়ান অনুযায়ী আমিশা পাটেল তার থেকে ২.৫ টাকা ধার করেছিলেন সিনেমা বানানোর নাম করে। আমিশা টাকা ফেরতের নামে একবার ২.৫ কোটির চেক ও ৫০ লাখের চেক দিয়েছিলেন, যা দুইবারই বাউন্স হয়ে যায়। এরপরই তিনি অভিযোগ করেন। আজও সেই টাকা ফেরত পাননি অজয় কুমার। আর সেই সূত্রে ভারতীয় দন্ডবিধি ৪২০, ১২০ ধারায় তার নামে অভিযোগ দায়ের হয়। এবার অভিনেত্রীর নামে জারি হল গ্রেপ্তারি পরোয়ানা।

আর এ