শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

| ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে দল বেঁধে রাজধানী ছাড়ছে মানুষ

ষ্টাফ রিপোর্টার

পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে দল বেঁধে রাজধানী ছাড়ছে মানুষ

আর মাত্র ক’দিন পরেই পবিত্র ঈদুল ফিতর। মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) ছিল সরকারি অফিসে শেষ কর্মদিবস। টানা ৫দিন ছুটি শুরু হচ্ছে বুধবার থেকে। লম্বা এই ছুটিতে পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে গ্রামে বাড়িতে ছুটতে শুরু করেছেন অনেকেই। 

রাজধানী ছেড়ে যাওয়ার কারণে মঙ্গলবার বিকেলের পর থেকে বিভিন্ন এলাকার সড়কে গাড়ির চাপ বেড়ে গেছে। বিশেষ করে রাজধানীর বাস টার্মিনাল ও শহর থেকে বের হওয়ার রাস্তাগুলোতে প্রচুর যানজট দেখা গেছে। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই যানজটের পরিমাণ আরও বাড়ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সকাল থেকে রাজধানীর এসব এলাকায় যানচলাচল মোটামুটি স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু অফিস ছুটি হওয়ার পরপরই যানচলাচল বেড়ে যায়। এবারের রমজানে প্রতিদিন ইফতারের আগে রাস্তায় গাড়ির চাপ পরিলক্ষিত হয়েছে। আজ ঈদের আগে শেষ কর্মদিবস হওয়ায় অফিস শেষ করে সবাই বাস, ট্রেন ও লঞ্চ টার্মিনালমুখী হওয়ায় যানজটের পরিমাণ আরও বেড়ে যায়।

যাত্রাবাড়ী এলাকায় ঘুরে দেখা যায়, বিকেলে থেকে যানজট শুরু হয়েছে। যাত্রবাড়ীর হানিফ ফ্লাইওভার ও এর নিচ দিয়ে যানবাহনে চড়ে ঢাকা ছাড়ছে ঘরমুখো মানুষ। ফলে ফ্লাইওভারের ওপর ও নিচ দিয়ে অসহনীয় যানজটের সৃষ্টি হয়।

যাত্রাবাড়ী এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক পরিদর্শক (টিআই) মো. মাহবুব বলেন, আজ রাস্তায় গাড়ির প্রচুর চাপ। সে কারণে ফ্লাইওভারের ওপরে ও নিচে অনেক যানজট লেগে গেছে। আজ থেকে ঈদযাত্রা শুরু হয়েছে, তাই গাড়ির চাপ বাড়বে এটাই স্বাভাবিক। ঈদযাত্রা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই চাপ থাকবে। 

গাবতলী বাস টার্মিনালগামী যানবাহনের চাপের কারণে নিউমার্কেট থেকে মিরপুর রোডে প্রচণ্ড যানজট সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া মহাখালী বাস টার্মিনাল এলাকার আশপাশেও ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

সদরঘাটে বিআইডব্লিটিএ’র ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হেদায়েত উল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, কাল থেকে ছুটি শুরু হচ্ছে। আজ থেকেই ঘাটে যাত্রীর ভিড় দেখা যাচ্ছে। দিনের তুলনায় রাতে বেশি যাত্রী নিয়ে সদরঘাট থেকে লঞ্চ ছাড়বে। ঘাটে লঞ্চ বেশি থাকায় যাত্রীদের ওঠানামা করতেও বেশ অসুবিধা হচ্ছে।

এবার রমজান মাস ২৯ দিন ধরে ২২ এপ্রিল (শনিবার) ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণ করে ছুটির তালিকা করেছে সরকার। ২১ থেকে ২৩ এপ্রিল (শুক্র, শনি ও রোববার) ঈদের ছুটি থাকবে। ২০ এপ্রিল ছুটি ঘোষণা হওয়ায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ১৯ থেকে ২৩ এপ্রিল পর্যন্ত টানা পাঁচ দিনের ছুটি পাবেন। এরমধ্যে ২১ ও ২২ এপ্রিল পড়েছে সাপ্তাহিক ছুটি শুক্র ও শনিবার। তবে রমজান মাস ৩০ দিন হলে ঈদুল ফিতর হবে ২৩ এপ্রিল। সেক্ষেত্রে ছুটি একদিন বাড়বে। সে ক্ষেত্রে ২৪ এপ্রিলও ছুটি থাকবে। ২০ এপ্রিল ছুটি হওয়ায় ১৯ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত টানা ছয়দিনের ছুটি ভোগ করতে পারবেন সরকারি কর্মচারীরা। তবে ঈদের পর আগের নিয়মেই ফিরবে অফিস। আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা-স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের অফিস রোববার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে। শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে।

আর এ